প্রেমের টানে লক্ষ্মীপুরে ছুটে এলেন আরও এক ইন্দোনেশিয়ান তরুণী

মালয়েশিয়ায় চাকরির সুবাদে ইন্দোনেশিয়ান তরুণী সিতি রাহাইউর স’ঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের যুবক মামুন হোসেনের। সম্পর্কের পাঁচ বছর পর ছুটিতে লক্ষ্মীপুরে এসে বিবাহ ব’ন্ধনে আ’বদ্ধ হয়েছেন তারা।

এ নিয়ে সাত মাসের মাথায় ইন্দোনেশিয়ার দুই তরুণী রায়পুরে ছুটে এলেন। রোববার (৯ অক্টোবর) বিকেলে লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের আইনজীবী শাকিল পাটওয়ারী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তার মাধ্যমেই এফিডেভিট ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন এই জুটি।এরআগে গত ৮ মার্চ প্রেমের টানে একই উপজেলার রাখালিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী রাসেল আহমেদের কাছে ছুটে আসেন ইন্দোনেশিয়ান তরুণী ফানিয়া আইঅপ্রেনিয়া।

 

পরে তারা লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের আইনজীবী মারুফ বিন জাকারিয়ার মাধ্যমে এফিডেভিট করে বিয়ে করেন। ফানিয়া এখন বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। রাসেলের ব্যবসার সুবাদে তারা ঢাকায় আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *